জীবননগরে করোনার উপসর্গ নিয়ে নারীর মৃত্যু, ৫ বাড়ি লকডাউন



চুয়াডাঙ্গার জীবননগর উপজেলায় করোনা উপসর্গ নিয়ে এক গৃহবধূর মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনায় প্রতিবেশীদের পাঁচটি বাড়ি লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে। বুধবার রাতে উপজেলার উথলী গ্রামে ওই গৃহবধূর মৃত্যু হয়। মৃত গৃহবধূর নাম সাবিনা খাতুন ছবি (৪৫)। তিনি উপজেলার উথলী বাজারপাড়া গ্রামের রফিকুল ইসলামের স্ত্রী।


মেয়ে রানু খাতুন জানান, কয়েক দিন থেকে ঠাণ্ডা, কাশি, জ্বর ও শ্বাসকষ্টে ভুগছিলেন তার মা। বুধবার সন্ধ্যা থেকে অবস্থার আরও অবনতি ঘটে। রাত সাড়ে ১১টার দিকে তিনি নিজ বাড়িতে মারা যান। এ ব্যাপারে উথলী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ বলেন, “গৃহবধূ সাবিনা খাতুন করোনা ভাইরাসের উপসর্গ নিয়ে মারা গেছেন বলে জানা গেছে।”

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স কর্তৃপক্ষ রাতেই মৃত নারী ও তার পরিবারের সদস্যদের সংস্পর্শে আসা প্রতিবেশীদের নমুনা সংগ্রহ করেন।
এ ঘটনায় নিহতের বাড়িসহ প্রতিবেশীদের পাঁচটি বাড়ি লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে। জীবননগর উপজেলা প্রশাসনের নির্দেশনায় যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি মেনে বুধবার রাতেই নিহতের দাফন সম্পন্ন হয়েছে বলে জানান ইউনিয়নের চেয়ারম্যান।
উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্মকর্তা ডা. জুলিয়েট পারউন বলেন, “নিহত সাবিনা খাতুন ছবি সর্দি, কাশি, জ্বর ও ডায়রিয়া নিয়ে মারা যাওয়ায় গ্রামবাসী করোনা সন্দেহ করছেন।” গ্রামবাসীর অভিযোগের ভিত্তিতে মৃত নারীর নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে স্থাপিত ল্যাবে পাঠানো হয়েছে, পরীক্ষার রিপোর্ট পাওয়ার পরই আসল রহস্য জানা যাবে।

SHARE THIS

0 Comments:

আমরা সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।